আড়াইমাস পর পণ্য আমদানি-রপ্তানি শুরু সোনাহাট স্থলবন্দরে

আকাশছোঁয়া ডেস্ক : করোনার মারাত্মক সংক্রমণ ঠেকাতে দীর্ঘ আড়াই মাস বন্ধ থাকার পর কুড়িগ্রামের সোনাহাট স্থলবন্দর দিয়ে পন্য আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। খবর বাংলানিউজের।

১৩ জুন  শনিবার সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও স্প্রে ব্যবহারসহ বিভিন্ন পদ্ধতি অবলম্বনের মাধ্যমে দুদেশের ব্যবসায়ীরা ভূরুঙ্গামারী সীমান্তে অবস্থিত সোনাহাট বন্দর দিয়ে পণ্য আমদানি রপ্তানি শুরু করেছে।

করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে চলতি বছরের ২৫ মার্চ ভারতের ধুবরী জেলা লকডাউন করা হলে সোনাহাট স্থল বন্দর দিয়ে সকল প্রকার পণ্য আমদানি রপ্তানি বন্ধ করে দেয় ভারত সরকার। একইসাথে বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরাও ঐ দিন থেকে বন্দরের সকল প্রকার কার্যক্রম বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়।

সোনাহাট স্থলবন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট এসোসিয়েশন সভাপতি সরকার রকিব আহমেদ জুয়েল গণমাধ্যমকে জানান, সম্পূর্ণ স্বাস্থ্য সুরক্ষা মেনে আমরা পণ্য আনা নেয়ার কাজ চালু রাখা হবে। এই বন্দর দিয়ে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা পাথর ও কয়লা আমদানি এবং ভারতীয় ব্যবসায়ীরা প্লাস্টিক সামগ্রী, গার্মেন্টস ঝুট, নেট ও পামওয়েল আমদানি করেন। স্থলবন্দরটি বন্ধ থাকায় এই দীর্ঘ আড়াইমাসে সরকার বিপুল পরিমাণ রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হয়।

 

সর্বশেষ সম্পাদিতঃ জুন ১৩, ২০২০ সময়ঃ ৭:৩৭ অপরাহ্ন